1. dailyamarkothabd@gmail.com : admin :
  2. hmhabibullah2000@gmail.com : Habib :
  3. sabbirmamun402@gmail.com : Sabbir :
প্রেমে ব্যর্থ হয়ে ২ বন্ধুর আত্মহত্যা - দৈনিক আমার কথা
শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ০৮:৫৫ পূর্বাহ্ন
শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ০৮:৫৫ পূর্বাহ্ন

প্রেমে ব্যর্থ হয়ে ২ বন্ধুর আত্মহত্যা

Amar Kotha Desk
  • প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, ১৪ মে, ২০২৪

বন্ধু অশ্রু বিশ্বাসের মরদেহের অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া শেষে বাড়ি ফেরার পর মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েন পল্লব বাড়ৈ প্রেমে বিচ্ছেদ হওয়ায় তিনি আগে থেকেই মানসিকভাবে বিপর্যস্ত ছিলেন।

গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়া উপজেলায় প্রেমে ব্যর্থ হয়ে গলায় ফাঁস দিয়ে দুই বন্ধু আত্মহত্যা করার অভিযোগ উঠেছে।

মঙ্গলবার সকালে গাছের সঙ্গে ফাঁস দেয়া অবস্থায় পল্লব বাড়ৈ নামের কলেজ পড়ুয়া এক যুবকের মরদেহ উদ্ধার করে কোটালীপাড়া থানা পুলিশ। এর আগে সোমবার সকালে গলায় ফাঁস লাগানো অবস্থায় অশ্রু বিশ্বাস নামের অপর এক কলেজ শিক্ষার্থীর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

২২ বছর বয়সী পল্লব বাড়ৈ উপজেলার শিকির বাজার গ্রামের গণেশ বাড়ৈয়ের ছেলে। ২৪ বছর বয়সী অশ্রু বিশ্বাস ছিকটিবাড়ী গ্রামের আশুতোষ বিশ্বাসের ছেলে। তারা দুজন ভালো বন্ধু ছিলেন।

স্থানীয়দের বরাতে পুলিশ জানায়, অশ্রু বিশ্বাস গোপালগঞ্জের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কলেজের স্নাতক প্রথম বর্ষের ছাত্র ছিলেন। বরিশালের একটি মেয়ের সঙ্গে দীর্ঘদিন ধরে তার প্রেম চলছিল। সম্প্রতি মেয়েটি যোগাযোগ বন্ধ করে দিলে তিনি মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েন।

সোমবার ভোরে তাকে ঘরে না পেয়ে পড়শিদের নিয়ে খুঁজতে বের হন অশ্রুর মা-বাবা। সকালে বাড়ির পাশের একটি গাছে গলায় ফাঁস দেয়া অবস্থায় তাকে দেখতে পায় স্থানীয়রা। খবর পেয়ে কোটালীপাড়া থানা পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে।

পুলিশ জানায়, মরদেহের জামার পকেটে একটি চিরকুট পাওয়া যায়। সেখানে লেখা ছিল, ‘আমার মৃত্যুর জন্য কেউ দায়ী নয়’।

এদিকে বন্ধু অশ্রুর অকস্মাৎ মৃত্যুর পর গলায় ফাঁস দেন পল্লবও।

থানা পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, অশ্রুর মরদেহের অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া শেষে বাড়ি ফেরার পর মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েন পল্লব।

পল্লব বাড়ৈ ঢাকার একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী। প্রতিবেশী একটি মেয়ের সঙ্গে প্রেমের সর্ম্পক ছিল তার। মেয়েটির অন্যত্র বিয়ে হয়ে যাওয়ায় আগে থেকেই নেশাগ্রস্ত হয়ে পড়েন তিনি।

কিছুদিন ধরে বিয়ে করার জন্য তিনি পরিবারকে চাপও দিয়ে আসছিলেন। এ নিয়ে পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে প্রায়ই তার ঝগড়া হচ্ছিল। সোমবার বন্ধুর মৃত্যুর পর নিজেও একইভাবে পৃথিবী ছাড়ার পরিকল্পনা করেন পল্লব। পরে মঙ্গলবার সকালে ঘরের আড়ার সঙ্গে গলায় ফাঁস দেয়া অবস্থায় তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

কোটালীপাড়া থানার এসআই হাবিবুর রহমান জানান, গোপালগঞ্জ সদর হাসপাতালে মরদেহের ময়নাতদন্ত করা হয়েছে। এ ব্যাপারে কোটালীপাড়া থানায় অপমৃত্যু মামলা হয়েছে।

Facebook Comments Box

Please Share This Post in Your Social Media

এ জাতীয় আরও খবর